ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

“Golden page” যা কি বদলে দিতে আপনার ভবিষ্যৎ …….

সবাইকে স্বাগতম জানিয়ে শুরু করতে যাচ্ছি আজকের আলোচনা “Golden page ”। যা আপনার জীবনে বিপ্লব ঘটাতে পারে । গত ১৮ থেকে ২২ জুলাই অনুষ্ঠিত হয়ে গেল “অনলাইন মার্কেটিং ও ওয়ার্কশপ” । যেখানে প্রাক্টিকাল্যী শেখানো হয়েছে মার্কেট স্টেটজি,বিজনেস প্লানিং, পার্সোনাল ডেভেলপমেন্ট আরও অনেক কিছু ……। তারমধ্য থেকে একটা বিষয় হল “Golden page”।

ADs by Techtunes ADs

dddddd

“অনলাইন মার্কেটিং ও ওয়ার্কশপ” শেষ হওয়ার পরপরই ইমেইল মার্কেটারস বিডি গ্রুপ ও ফেসবুকের মাধ্যমে আমাকে প্রায় ৩০০ প্লাস মানুষ আমাকে জানিয়েছেন যে, “আমরা যারা “অনলাইন মার্কেটিং ও ওয়ার্কশপ”অংশগ্রহন করতে পারি নাই তাদের জন্য “অনলাইন মার্কেটিং ও ওয়ার্কশপ” এর যে কোন একটা বিষয়ের উপর একটা টিউন করেন…………………”

তাই ভাবতে শুরু করলাম কোন বিষয় উপর লিখা যায় কারণ, সকল বিষয় গুলোই ছিল সমান গুরুত্তপূর্ণ । তাই এমন একটা বিষয় নির্ধারণ করলাম যা প্রতিটি মানুষের জন্য খুবই জরুরী । আর সেই জন্যেই আজ লিখতে বসে গেলাম “Golden page”  নিয়ে।

এই আলোচনায় আমরা কি কি জানতে পারব ?

১। “Golden page” আসলে কি এবং “Golden page” কাদের জন্য জরুরী ?

২। “Golden page” কিভাবে তৈরি করবেন ?

৩। “Golden page” এবং প্ল্যানিং সমন্বয় ঠিক আসে কি না তা চেক করা

৪। “Golden page” ব্যবহার কিভাবে করবেন ?

আর সাথে থাকছে, “Golden page” তৈরি করার উপর একটি শর্ট ভিডিও টিউটোরিয়াল ।

১। “Golden page” আসলে কি এবং “Golden page” কাদের জন্য জরুরী ?

শুধু যদি “Golden page” সম্পর্কে বলতে চাই তাহলেও ৮ টা থেকে ১০ টা টিউনেও শেষ করা যাবে না “Golden page” এর বিশালতা । “Golden page” হল এমন একটা তত্ত যা আপনার জীবনকে নতুন রুপ দান করতে পারে । সবচেয়ে মজার বিষয় হচ্ছে, এই “Golden page” এর লেখক, পরিচালক, নীতিনির্ধারক, নিয়ন্ত্রক আর কেউ নয়, সে হচ্ছেন আপনি নিজেই……!!

ADs by Techtunes ADs

“Golden page” আসলে হচ্ছে, আপনি আপনার পরিকল্পনা তৈরি ও অর্জনের সমন্বয় করার চালিকা শক্তি । এছাড়া বলতে পারেন, “Golden page” হল আপনার আসল প্রতিবিম্ব যা আপনি আয়নাতে কখনো দেখতে পারেন নি ।

I-know-what-you-ate

একটা উধাহারণ দিয়ে বিষয়টি বুঝিয়ে দিচ্ছি, ধরুন আপনি ছোটবেলা হতে চেয়েছেন ডাক্তার বা উকিল কিন্তু হয়ে গেছেন ব্যাংকার বা জাহাজের নাবিক । বলুনতো এমনটা আপনার জীবনে হয়েছে কি না ? শতকরা ৯০% মানুষের উত্তর আসবে “হ্যা” । কারণ আপনি আপনার পরিকল্পনা ছিল ঠিকই কিন্তু, বিভিন্ন রকমের বাধা বিপত্তি সামলাতে না পেরে লাইন হারিয়ে আপনি বেলাইনে চলে গিয়েছেন। তারমানে আপনার আয়না আপনাকে আপনার আসল প্রতিবিম্ব দেখাতে পারে নি । আর এই আসল প্রতিবিম্ব আপনাকে দেখাতে পারে আপনার তৈরি “Golden page” ।এই কথাটা আপনাকে মানতেই হবে ।

“Golden page” আসলে কাদের জন্য জরুরী এই কথাটা লিখাই ভুল হইছে ……। আবার লিখারও দরকার আছে । কারণ, অনেক মনে করছে এটা মনে হয় যারা অনলাইনে কাজ করেন শুধু তাদের জন্য ব্যবহার করতে হবে বা যারা ইমেইল মার্কেটিং করবে তাদের জন্য বা এই জাতীয় কোন কাজ জানেন তাদের জন্য ইত্যাদি ইত্যাদি । অনেকই আছেন “Golden page” কে পাগলামি মনে করবেন, আবার অনেকেই আছেন যারা “Golden page” ব্যবহার করে নিজের জীবনকে উন্নতির শীর্ষে নিয়ে যাবেন ।

আমার লিখা বা আমার এই ছোট্ট প্রয়াস সেই সব মানুষের জন্য যারা নিজেকে যার যার অবস্থান থেকে পরিবর্তন হয়ে উন্নতির শিখর ছুঁতে চান ।

url

“Golden page” আসলে প্রতিটি মানুষের জন্যই জরুরী । মানে, একজন স্কুল-কলেজ ছাত্র, শিক্ষক, চকুরিজীবী, ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, লেখক, গৃহিণী বা যে কোন পেশাজীবী বা অপেশাজীব মানুষের জন্য এই “Golden page” খুবই জরুরী ।“অপেশাজীব” লিখার কারণে অনেকে অবাক হতে পারেন ।

অবাক হওয়ার কিছু নাই । কারণ, শুধু পেশাভিত্তিক বিষয়ের জন্যই “Golden page” নয়, ব্যক্তিগত কারণের জন্যও আপনি “Golden page” ব্যবহার করবেন । এতে আপনি প্রফেশনাল ও পার্সোনাল দুই জীবনেই সুখী হতে পারবেন ।

২। “Golden page” কিভাবে তৈরি করবেন ?

““Golden page” ” নাম বলেই যে সোনালী পাতা বা সোনালী বর্ণ দিয়ে লিখতে হবে বিষয়টা আসলে এমন নয় । আসলে “Golden page” এ লিখা হবে আপনার ফিউচার প্লানের রোডম্যাপ ।

এখান অনেকেই বলতে পারেন “Aim in life”আর ““Golden page” ” এর মধ্যে পার্থক্য কি ?

ADs by Techtunes ADs

পার্থক্য হলো, “Aim in life” বলতে বোঝায়, আমরা বা আমাদের বাবা-মা আমদের জন্য একটা প্ল্যানবিহীন লক্ষ্য নির্ধারণ করে দেয় ।মানে, আমি বড় হয়ে এটা হবো বা তুমি বড় হয়ে ওটা হবা কিন্তু দেখা যায়, মাত্র শতকরা ২ থেকে ৫% মানুষ এই “Aim in life” তত্তের ভিত্তিতে সাফল্য পেয়ে থাকেন । আর বাকি ৯০% মানুষ হয় ব্যর্থ । কারণ, আপনার কোন প্ল্যানিং থাকে না বা থাকলেও তা কার্যকরী হয় না, সময় নির্ধারণ ঠিক হল না ভুল তা খতিয়ে দেখা হয় না, আপনার প্ল্যানটা কি যুক্টিসঙ্গত হল কিনা তা খতিয়ে দেখা হয় না ইত্যাদি ইত্যাদি ।

2427180-single-lonely-golden-leaf-fallen-in-the-black-asphalt

আর ““Golden page” ”বলতে বোঝায় আপনার লাইফটাইম গোল । যার যুক্টিসঙ্গত প্ল্যান তৈরি করবেন আপনি, যার বাস্তবসমত্ব সময় নির্ধারণ করবেন আপনি এবং তা লাইনে আছে না লাইন চুত্ত্য হয়ে গেছে কি না তাও খেয়াল রাখবেন আপনি এবং সাফল্য পাওয়ার আগ পর্যন্ত পাশে থাকবেন আপনি । আর আপনাকে এই সবকিছু করতে বাধ্য করবে আপনার তৈরি “Golden page” । শতকরা ৯০% মানুষ এই ““Golden page” ” তত্তের ভিত্তিতে সাফল্য পেয়ে থাকেন । আর বাকি শাতকরা ১০% মানুষও সাফল্য পেতে পারেন যদি আপনি আপনার ““Golden page” ” সঠিকভাবে তৈরি ও সঠিকভাবে ব্যবহার করতে পারেন ।

তাই “Golden page” কিভাবে তৈরি করবেন তা পুরোপুরি নির্ভর করবে আপনার উপর । কারণ, আপনি কি পরিমাণ চাপ বা কি পরিমাণ কাজ বা কি পরিমাণ সময় ব্যয় করতে পারবেন তা আপনি সব চেয়ে ভাল বলতে পারবেন । তবে আমি আপনাদের সবকিছু বুঝিয়ে দিচ্ছি ।

প্রথমে, আপনি আপনার লাইফটাইম টার্গেটেড প্ল্যান তৈরি করবেন । যেখানে আপনি সবকিছু লিখবেন যা আপনি আপনার লাইফে অর্জন করতে চান । কমপক্ষে ৭ দিন অনেক ভেবে চিন্তে এই প্ল্যান করবেন । কারণ, এটা আপনার জীবন উন্নত করার পরিকল্পনা । তাই তাড়াহুরা না করে আপনি আপনার ফ্রীটাইমে এই প্ল্যানগুলো করবেন ।

তারপর আপনার “লাইফটাইম টার্গেটেড প্ল্যান” কে কয়েকটি অংশে বিভক্ত করতে হবে । মানে কিছু সময় অন্তর অন্তর বিভক্ত করতে হবে । যেমন, ৩ মাস, ৬ মাস, ১ বছর, ৩ বছর, ৫ বছর, ১০ বছর । আমার মতে, ৩ মাসের কম বা ১০ বছরের বেশী সময় নিয়ে প্ল্যান করা ঠিক হবে না ।

url

আপনি যেমন সাফল্য অর্জন করতে চান তার উপর নির্ভর করে সময় নির্ধারণ করবেন। তবে যত দিনেরই প্ল্যানই হোক না কেন আপনি যদি ১০ বছর সময়ও নির্ধারণ করেন, তাহলে, আগে ৩ মাস, ৬ মাস, ১ বছর, ৩ বছর ও ৫ বছরের প্ল্যান তৈরি করতে হবে । যদি আপনার প্ল্যান হয় ৫ বছরের তাহলে, আগে ৩ মাস, ৬ মাস, ১ বছর, ৩ বছরের প্ল্যান তৈরি করতে হবে । আর যদি আপনার প্ল্যান হয় ৩ বছরের তাহলে, আগে ৩ মাস, ৬ মাস, ১ বছরের প্ল্যান তৈরি করতে হবে ।

মানে বিষয়টা এমন যে, আপনি ৩ মাসের প্ল্যানে সফল হতে পারলে আপনি ৬ মাসের প্ল্যানে সফল হবেন, ৬ মাসের প্ল্যানে সফল হতে পারলে আপনি ১ বছরের প্ল্যানে সফল হবেন, ১ বছরের প্ল্যানে সফল হতে পারলে আপনি ৩ বছরের প্ল্যানে সফল হবেন, ৩ বছরের প্ল্যানে সফল হতে পারলে আপনি ৫ বছরের প্ল্যানে সফল হবেন এবং ৫ বছরের প্ল্যানে সফল হতে পারলে আপনি ১০ বছরের প্ল্যানেও সফল হবেন । আর যদি আপনি ৩ মাসের প্ল্যানে বার্থ হন তাহলে বুঝতে হবে আপনার প্ল্যান তৈরিতে কোন ভুল কিছু । তাই আবার নতুন করে প্ল্যান তৈরি করে আবার শুরু করুন । এই কথাই স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে যে, সবচেয়ে বেশী জরুরী ও কার্যকরী প্ল্যান হতে হবে ৩ মাসের প্ল্যানিং এ । কারণ, এর উপর আপনার “লাইফটাইম টার্গেটেড প্ল্যান” পুরোটাই নির্ভর করবে ।

url

ADs by Techtunes ADs

এখান আসি কিভাবে আপনি তিন মাস বা ৯০ দিনের প্ল্যান করেবন এবং কি কি জিনিষ মাথায় রেখে প্ল্যান তৈরি করবেন । প্রথমে, ৯০ প্রিস্টার একটা নোটবুক তৈরি করবেন । যার প্রথম প্রিস্টা থেকে নয়, শেষ প্রিস্টা থেকে শুরু করেতে হবে । মানে আপনি ৩ মাস বা ৯০ দিনের প্ল্যানে আপনি যা অর্জন করেতে চান তা ৯০ দিনের প্রিস্টায় মানে নোটবুকের শেষ প্রিস্টায় লিখুন ।বিষয়টা আরেকটু বুঝিয়ে বলছি, মনে করুন, ৩ মাস বা ৯০ দিনের মধ্যে আপনি বিয়ে করবেন এই প্ল্যান করেছেন । তাহলে ৯০ দিনের প্রিস্টায় মানে নোটবুকের শেষ প্রিস্টায় লিখবেন “আপনার শুভ বিবাহ”। তার আগের দিনের পাতায় লিখবেন “আপনার গায়ে হলুদ”। এভাবে শেষেরদিক থেকে আগাতে আগাতে কনের হলুদ, বিয়ের কেনাকাটা, বিয়ের জায়গা নির্বাচন ইত্যাদি ইত্যাদি করতে করতে প্লানের ১ম দিনে এসে লিখবেন “আপনারবিয়ের জন্য আপনি ১০০% প্রস্তুত”।

এভাবে আপনার প্ল্যান অনুযায়ী প্রতিদিনের কাজ প্রতিদিন করলেই ৩ মাস বা ৯০ দিনের মধ্যে আপনি আপনার কাঙ্ক্ষিত গন্তব্যে পৌঁছে যাবেন ।

মানে জীবনে অনেক সময় ভেবেছেন কাল থেকে এটা করবেন, ওটা করবেন কিন্তু, আসলে কি তা হয়েছে……। ৯০% মানুষের উত্তর হবে, হয়নি !! কারণ, আজ কি করবেন, কাল কি করবেন, পরশু কি করবেন তাতো কিছু ঠিক করাই হয়নি । এর সব চেয়ে বড়কথা হল, আমার প্লানের রেজাল্ট কি হবে বা কবে হবে, তাই তো ক্লিয়ার না । তাই প্ল্যান শুরু থেকে নয় শেষ থেকে তৈরি করতে হবে ।

৩। “Golden page” এবং প্ল্যানিং সমন্বয় ঠিক আসে কি না তা চেক করা

আপনি কোন কিছু না ভেবেই প্ল্যান তৈরি করলেন আর তা সফল হয়ে গেল এটা বলা বা চিন্তা করাই ঠিক হবে না । কারণ আপনার প্ল্যানের সাথে যদি আপনার দেওয়া সময় ও কাজের যদি কোন মিল না থাকে তাহলে কোনই লাভ নাই । শুধু নিজের সাথে বা নিজের জীবনের সাথে মজা করার ছাড়া আর কিছু নয় ।

url

বুঝছি, আপনি বুঝেন নাই । একটা উদাহারন দিয়ে বুঝিয়ে দিচ্ছি, ধরুন, আপনার ওজন ৮০ কেজি। আপনি ৭দিনে আপনার ওজন ২০ কেজি কমাতে চান । এই জন্য আপনি প্রতিদিন না খেয়ে বা দিনে একবার খেয়ে এবং সারাদিন ব্যায়াম আর ব্যায়াম করতেই থাকবেন এই রকম প্ল্যানের গোল্ডের পেজ বানালেন । আর এটা অনুসরণ করতে থাকলেন, দেখা যাবে ওজন তো কমবেই না বরং আপনি অসুস্থ হয়ে যাবেন এটা শউর ।

মোট কথা আপনি যা প্ল্যান করছেন তা অবশ্যই বাস্তবসম্মত হতে হবে ।আপনি কতটুকু সময় দিতে পারবেন, কতটুকু কাজ করতে পারবেন, কতটুকু পরিশ্রম দিতে পারবেন সব কিছু ভেবে চিন্তে করতে হবে। কারণ, যেহেতু গোল্ডেন পেজ হল লাইফ টাইম গোল……ঠিক আছে ।

৪। “Golden page” ব্যবহার কিভাবে করবেন ?

শুধু “Golden page” বানালেই হবে না গোল্ডেন পেজের ব্যবহারও জানতে হবে । কারণ, সাইকেল কিনছেন কিন্তু চালাতে পারেন না !!! তাহলে সাইকেল কিনে লাভ কি ?

তাই শুধু ব্যবহার না সঠিক ব্যবহার জানতে হবে।

আপনি আপনার যে “Golden page” বানিয়েছেন তা প্রিন্ট করে আপনার পকেটে রেখে দিবেন যত্নের সাথে । আর প্রতিদিন ঘুমাতে যাওয়া আগে এবং ঘুম থেকে ওঠার পর আপনি আপনার তৈরিকৃত “Golden page” খুব ভালভাবে পড়বেন । এতে আপনি আপনার অর্জনের পথে এগিয়ে যাওয়ার চালিকা শক্তি পাবেন । এটা খুব জরুরী । কারণ, তা না হলে পিছিয়ে যাবেন ……… মানে আপনার প্ল্যান ফেল করবেন ।

ADs by Techtunes ADs

url

আরেকটা উদাহারণ দেই কি বলেন, আগে যখন আমরা স্কুলে ছোট ছিলাম, তখন কোন শিক্ষকের পড়া না পড়ে গেলেও ঐ শিক্ষকদের পড়া ঠিকই পড়ে যেতাম, যে যে শিক্ষক আমাদের উত্তম-মদ্ধম ভাল করে দিতেন !! তার মানে ঐ শিক্ষকদের পড়ার চালিকা শক্তি ছিল তাদের উত্তম-মদ্ধম !!

আপনার যখন নিজেকে অলস বা কোন কারণে হতাশ মনে হলে সাথে সাথে আপনার তৈরিকৃত “Golden page” খুব মনযোগ দিয়ে পড়ে নিবেন । এতে আপনার প্রাণশক্তি ফিরে পাবেন ।

“Golden page” তৈরি করার সুবিধা অনেক । আপনি আপনার প্ল্যানে কতদূর আগাছেন বা পিছিয়ে যাবেন তা বুঝতে পারবেন । অর্থাৎ আপনার প্রতিদিনের কাজ কতদূর হল তা প্ল্যানের সাথে মিলিয়ে দেখলেই বুজতে পারবেন । তখন “Golden page” আপনাকে সঠিক রাস্তা দেখিয়ে দেবে… ঠিক আছে ।

এটা এতোটাই পাওয়ারফুল একটা মেথড যে আপনি মাত্র তিন মাসের ভিতর এর কার্যকারিতা বুঝতে পারবেন ।

আপনি এই টিউনের সাথে ভিডিও টিউটোরিয়ালটা ভাল করে দেখে ও বুঝে নিয়ে তৈরি করতে শুরু করেন আপনার সাফল্যের “Golden page” ।

আমার কিছু কথা বা টিপস

আপনি যা চান তা যদি মন থেকে না চাওয়া তাহলে আপনি কখনই তা পাবেন না । তারমানে চাওয়াটা কেমন হতে হবে ?

মনে করুন, আপনার অনেক জ্বর। বিছানা থেকে নামতেই পারছেন না । কিন্তু যদি আপনার সামনে একটা রয়েল বেঙ্গল টাইগার ছেড়ে দেওয়া হয়, তাহলে আপনি তখন বিছানা না বাড়ির ছাঁদ থেকেও লাফানো শক্তি পেয়ে যাবেন ।

আশা করি বুঝতে পেরেছেন, মন থেকে চাওয়া বলতে আমি কি বুঝাতে চেয়েছি । আর এই মন থেকে চাওয়া শক্তি যোগাবে আপনার তৈরি “Golden page” ।

ADs by Techtunes ADs

তাই অনেক যত্ন সহকারে ও ধীরে সুস্থে সময় নিয়ে পারফেক্ট একটা “Golden page” তৈরি করেন এবং আপনার জীবনকে দিন নতুন এক দিগন্তের ছোঁয়া !

ঝেড়ে ফেলুন পুরনো সব বাঁধা, বদলে ফেলুন আপনার ভবিষ্যৎ জীবন গোল্ডেন পেজের আলোকে ……. হাবিবুর রাহমান দিপু।

এই শুভ কামনায় শেষ করছি আজকের মত কিন্তু, আগামী শুক্রবার আপনাদের জন্য নিয়ে আসছি প্রফেশনাল ইমেইল মার্কেটিং টিউটোরিয়াল সবচেয়ে হট টিউন “ইমেইল লিস্ট বিল্ডিং”।

আর হ্যা জীবন পাল্টানোর সবচেয়ে কার্যকরী মাধ্যম ““Golden page” ” এই টিউন ও ভিডিওটি সবার সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না……………… ঠিক আছে ।

আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে আমার ফেসবুক গ্রুপে করতে পারেন............।।

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি Habibur Rahman Dipu। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 9 বছর 11 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 22 টি টিউন ও 24 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

আমি মোঃ হাবিবুর রহমান দিপু টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং শেষ করে চাকরীর পাশাপাশি প্রফেশন হিসেবে বেছে নিয়েছি আইটি ক্ষেত্রটিকে। এসইও, ইমেইল মার্কেটিং, ব্লগিং ইত্যাদি জানতে ও জানাতে ভালোবাসি । তাই যখনই সুযোগ পাই তখনই লিখতে বসে যাই। ফেইসবুকে আমি https://www.facebook.com/habibur.tutordipu


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

Level 0

মনে হয় টেক্ টিউনস এর ভীড়ে যেন দীপু ভাই না হারায়।

মনে করলাম ফাকি মারি, কমেন্ট করব না, কিন্তু Net-টা আবার connect করলাম, কারন এইরকম সাহায্যকারী টিউন সহজে মেলে না । অনেক ধন্যবাদ, আশা করি কাজে লাগাতে পারব ।

    ধন্যবাদ ্‌্‌্‌্‌্‌্‌্‌ তাহলে শেয়ার করেন সবার সাথে……………………। 🙂

Thanks you Dipu bhai!

ব্যাতিক্রমী টিউন। ভাল লেগেছে। 🙂

Level 0

এ রকম টিউন আরও আশা করি । চমৎকার হয়েছে , চালিয়ে যান ।

অসংখ্য ধন্যবাদ টিউনের জন্য সরাসরি প্রিয়তে নিলাম, 😀 🙂
চোখে সব গোল্ডেন গোল্ডেন দেখতাছি 😛

ধন্যবাদ টিউনের জন্য।

Thanks 🙂