যে কেউ কিনতে পারবে স্বল্প মূল্যের চালকবিহীন বিমান (ড্রোন)! এক্সক্লুসিভ ড্রোনগুলো সম্পর্কিত ফুল ফিচারড মেগাটিউন!

————————–— بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ ————————–—

সুপ্রিয় টেকটিউনস কমিউনিটি, সবাইকে আমার আন্তরিক সালাম এবং শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি চালক বিহীন বিমান তথা ড্রোন এর কিছু লেটেস্ট এবং অত্যাধুনিক সংস্করণ এবং তাদের মূল্যমান সম্পর্কিত আমার আজকের টিউন।

 ➡ ড্রোন কথাটি শুনামাত্র মেরুদণ্ড বেয়ে একটা হিমশীতল অনুভূতি সৃষ্টি হয়। চোখের সামনে ভেসে উঠে ক্ষমতাধর রাষ্ট্রের প্রতিহিংসার শিকার কোন নিরীহ মানুষের উপর চালকবিহীন বিমান কর্তৃক বোমা হামলার চিত্র। অধিকাংশ মানুষের ড্রোন কথাটির সাথে পরিচয় কিন্তু এভাবেই হয়েছে। তবে ড্রোন জিনিসটি হলো চালকবিহীন বিমান। যেটা যেকোন উদ্দেশ্যে তৈরী করা যেতে পারে। আজকের টিউনের শিরোনাম দেখে অনেকেই ভাবতে পারেন, “এবার তোরে খাইছি মফিজ। তোর মাথার উপর ড্রোন হামলা করবো”। কিন্তু আজকের টিউনের আলোচিত ড্রোনগুলো ব্যবহৃত হবে ফটোগ্রাফির জন্য। এই ড্রোনগুলোতে যুক্ত হাইকোয়ালিটির ক্যামেরার মাধ্যমে আপনার যেকোন কিছুর ছবি এবং ভিডিও ধারন করতে পারবেন। আপনার হাতে থাকা কন্ট্রোলিং সিস্টেমের সাহায্যে যেকোন অবজেক্ট এর স্থির বা চলমান ছবি অনায়াসেই ক্যাপচার করতে পারবেন। আশাহত হলেন কিনা বুঝতে পারলাম না তবে টিউনের পরবর্তি অংশে আপনার জন্য কিছু চমক অবশ্যই রয়েছে। কারন ড্রোনগুলো শুধু প্রদর্শনের জন্য না, এগুলো বিক্রির জন্যও। মানে আজ থেকে আপনিও হতে পারবেন একটি আকর্ষনীয় ড্রোন এর মালিক। তবে আর দেরি কেন?

Parrot Bebop Drone

Parrot Bebop Drone একটি তৃতীয় প্রজন্মের Parrot AR.Drone যা মূলত তার বিল্টইন ক্যামেরার সাহায্যে বাতাসে ভেসে ভিডিও ধারন করতে পারে। আমরা জানি শুন্যস্থানে ভেসে কোন অবজেক্টকে বিভিন্ন অ্যাঙ্গেল থেকে ফোকাস করা কষ্টসাধ্য। এই বিষয়টাকে মাথায় রেখে এই অসাধারন ড্রোনটি ডিজাইন করা হয়েছে। যাতে ১৮০ ডিগ্রি এবং ১৪ মেগাপিক্সেল Fisheye লেন্স এবং অত্যাধুনিক ক্যাপচারিং সফটওয়্যার যুক্ত রয়েছে। ফলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ড্রোনটি অসাধারন ফটো এবং ভিঠিও শুট করতে পারে।

এতে রয়েছে জিপিএস এবং অটো ল্যান্ডিং সুবিধা। তাছাড়া যেকোন অ্যাঙ্গেল এবং পরিস্থিতিতে ভিডিও ধারনের সুবিধা, ইমার্জেন্সি এলার্ট সহ আরও অনেক কিছু। মাত্র ৪০০ গ্রাম ওজনের এই ড্রোনটি দুটি ব্যাটারির সাহায্যে প্রায় ২২ মিনিট আকাশে উড়তে পারে। এর বাজার মূল্য এবং অন্যান্য ফিচারগুলো সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে প্যারোট এর অফিশিয়াল ওয়েব সাইট ভিজিট করুন। আশা করি, এ বিষয়ে আপনার তৃষ্ণা পুরোপুরি নিবারণ হবে।

Phantom 2 Vision Drone

ড্রোন জগতের আরও এক অপ্রতিদ্বন্দ্বী হলো Phantom 2 Vison ড্রোন। এতে রয়েছে অত্যাধুনিক Stills Fish Lens ক্যামেরা, জিপিএস এবং ওয়াই-ফাই কানেকশন। এর ওয়াই-ফাই সিগনাল যেকোন মূহুর্তের ড্রোনটির অবস্থা, অবস্থান, ক্যামেরা ভিউ, এবং রিয়েল টাইম ডাটা সরবরাহ করে। ৩০০ মিটার দুরত্ব পর্যন্ত এই ওয়াই-ফাই সিগনার কাজ করতে সক্ষম।

ড্রোনটির জিপিএস প্রযুক্তি ড্রোনটিকে আকাশে স্থিরভাবে ভেসে থাকতে সাহায্য করে। তাছাড়া এটার Altitude Lock যেকোন পজিশন এর উপর ড্রোনটিকে হোভার করাতে পারে। তাছাড়া ব্যাটারি পাওয়ার শেষ হয়ে গেলে ড্রোনটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে ইমার্জেন্সি ভুমিতে অবতরণ করতে পারে। ৯৯৯ ডলার মূল্যের এই ড্রোনটি সম্পর্কে আরও ব্স্তিারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

Walkera QR W100S Drone

Walkera QR W100S হলো একটি ফার্স্ট পারসন ড্রোন যেটা ওয়াই-ফাই কানেকশনের মাধ্যমে ব্যবহার করা যায়। মানে হলো আপনার অ্যান্ড্রোয়েড, উইন্ডোজ কিংবা iOS স্মার্টফোনে সাহায্যে ড্রোনটি কন্ট্রোল করতে পারবেন। ড্রোনটিতে ফ্লায়িং এর জন্য টিল্ট মোড এবং ফ্লায়িং মোড নামের দুটি অপশন আছে যার মাধ্যমে আপনি স্মার্টফোনের সাহায্যে ড্রোনটিকে আপনার ইচ্ছে মতো যেকোন অ্যাঙ্গেলে উড়াতে পারবেন।

তাছাড়া এই ড্রোনটি আপনাকে ফ্লায়িং এর সকল ডাটা প্রোভাইড করবে। তাছাড়া এর মাধ্যমে আপনি লাইভ ফিড দেখতে পারবেন। এর ওয়াই-ফাই কানেকশন আপনাকে সরাসরি তাই দেখাবো যা ড্রোনটি (ড্রোন ক্যামেরা) দেখতে পাবে। মাত্র ১৫৯ ডলার মূল্যের এই অসাধারন ড্রোনটি কিনতে চাইলে এখানে ক্লিক করুন

WL Toys V959 Drone

আপনার যদি একটি ইউনিক স্টাইল ড্রোন প্রয়োজন হয় তাহলে আপনার প্রথম পছন্দ হওয়া উচিত WL Toys V959 ড্রোনটি। এটা দেখতে একটি সুদৃশ্য কোয়াড কপ্টারের অনুরূপ কিন্তু একটু ছোট। এটার অনবোর্ড ক্যামেরা আপনাকে ছবি তুলতে এবং ভিডিও ধারন করতে সহযোগিতা করবে। তবে এটার একটাই অসুবিধা হলো এটার কন্ট্রোলার দিয়ে লাইভ ফিড দেখা যায় না।

আপনি যদি আগে কখনো ড্রোন না চালিয়ে থাকেন তাহলে এটা দিয়েই শুরু করতে পারেন। মাত্র ৫৮ ডলার মূল্যের এই ড্রোনটি দিয়ে আপনার ড্রোন চালনার শুরু করুন। এই ড্রোনটি সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

Hubsan H107D X4 Drone

Hubsan H107D X4 ড্রোনটি সস্তার মধ্যে অনেক বেশি কার্যক্ষম একটি ড্রোন। এটি আকারে ক্ষুদ্র এবং সহজেই ব্যবহার উপযোগি। এর কন্ট্রোলারে রয়েছে ৪.৩ ইঞ্চি রঙ্গিন লিকুইড ক্রিস্টাল ডিসপ্লে। যার সাহায্যে ড্রোনটির সার্বিক অবস্থা এবং লাইভ ফিড দেখা যায়। বিল্ট ইন ক্যামেরার সাহায্যে ছবি তোলার পাশাপাশি ভিডিও রেকর্ডও করা যায়। শুধুমাত্র কন্ট্রোলার প্যানেলে স্টার্ট এবং স্টপ বাটনের মাধ্যমে ড্রোনের ভিডিও বা ছবি তুলতে পারবেন।

এতে কোন জিপিএস প্রযুক্তি নেই। ফলে এটাকে শুন্যে স্থির রাখা যায় না। অথবা কোন স্থানের উপর হোভার করা যায় না। তবুও মাত্র ১৩৯ ডলার মূল্যের এই ড্রোনটি আপনার পছন্দ হয়ে যেতে পারে। ড্রোনটি সম্পর্কে আরও জানতে চাইলে এখানে ক্লিক করুন

শেষ কথা

টিউনটি যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে অথবা বুঝতে যদি কোন রকম সমস্যা হয় তাহলে আমাকে টিউমেন্টের মাধ্যমে জানাতে ভুলবেন না। কারন আপনাদের যেকোন মতামত আমাকে সংশোধিত হতে এবং আরো ভালো মানের টিউন করতে উৎসাহিত করবে। আর টিউনটিকে মৌলিক মনে হলে এবং নির্বাচিত টিউন হওয়ার উপযুক্ত মনে হলে নির্বাচিত টিউন মনোনয়ন দিতে ভুলে যাবে না যেন। সর্বশেষ যে কথাটি বলবো, আসুন আমরা কপি পেস্ট করা বর্জন করি এবং অপরকেও কপি পেস্ট টিউন করতে নিরুৎসাহিত করি। সবার সর্বাঙ্গিন মঙ্গল কামনা করে আজ এখানেই শেষ করছি। দেখা হবে আগামী টিউনে।

আপনাদের জন্য » সানিম মাহবীর ফাহাদ

➡ ইমেইলে আমার সকল টিউনের আপডেট পেতে সাবস্ক্রাইব করুনঃ টেকটিউনস » সানিম মাহবীর ফাহাদ 🙄

Sanem Mahbeer Fahad Facebook Fan PageSanem Mahbeer Fahad Facebook ProfileTwitterLinkedInGoogle PlusE-mail SubscriptionMail To Sanem Mahbeer Fahad

Level 7

আমি সানিম মাহবীর ফাহাদ। সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 4 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 172 টি টিউন ও 3503 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 137 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

অন্য আর দশটা মানুষের মতোই একদিন এই পৃথিবীতে আসছিলাম। তারপর থেকে নিজের মতো করেই নিজের পৃথিবীতে বেঁচে আছি। এরপর একদিন টুপ করে জীবন্ত পৃথিবী থেকে ঝরে পড়বো। জীবনতো এটাই, তাই না?


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

আমার তো মাঝে মাঝে আপনার উপরেই হামলা করতে ইচ্ছে করে। আপনার টিউনগুলোর সাথে এতটাই অভ্যস্ত হয়ে গেছি যে আর কারও টিউন ভালো লাগে না। অথচ আপনিও মাঝে মাঝে টিউন না করে ডুব দেন। বোমা বহনকারী ড্রোন বিষয়ে টিউন না করে আপনি নিজেরই উপকার করেছেন।

*** এই কারনে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করুন আমার কাছে 😛 😛 😛

    হা হা হা, আপনাকে কৃতজ্ঞতা! অল্প থেকেই আমার জান রক্ষা পেলো। আমি নিজে তো বোমা বহনকারী ড্রোন বিষয়ে কিছু লিখবই না বরং অন্যকেও লিখতে দিব না। চাচা আপন প্রাণ বাঁচা 😛 🙄 😆

সানিম মাহবীর ফাহাদ ভাই। সুন্দর একটি টিউন করার জন্য আপনকে আবার ধন্যবাদ।

ছোট বেলাতে রিমোট কন্ট্রোল খেলনা গাড়ি অনেক চালিয়েছি, খুব শখ ছিল একটা রিমোট কন্ট্রোল খেলনা হেলিকপ্টার কেনার; কিন্তু সেটা কখনো পূরন হয়নি। এখন চিন্তা করতেছি একদম সরাসরি একটা ড্রোন কিনে সেই শখটা পূরন করবো।

বরাবরের মতই সুন্দর টিউন, ধন্যবাদ।

    টিউনটা লিখার সময় আমারও শখ হইছে একটা কেনার। সবচেয়ে কম দামের (প্রায় ৫হাজার) যেটা সম্পর্কে লিখেছি সেটাই কিনে ফেলবো। তাও মানুষকে বলা যাবে, আমার একটা ড্রোন আছে। কি বলো?

মাস্টার সবসময় মাস্টার থাকে , আর তাই আপনাকে ওই একটি টিউন উৎসর্গ করে কিছু ভুল করিনি। আর সত্যি কথা বলতে আমি চাই আপনি আরো টিউন করুন কারণ আপনাদের মতো কিছু টিউমেন্টের আছে বলেই টেকটিউন আজ টেকটিউন। আর হ্যা আপনার কথা মতো লেখার স্টাইল পরিবর্তন করে দিলাম।
শেষ করা আগে, এত ভালো লেখেন কি করে বলেন তো ? মাঝে মাঝে মনে হয় আপনার মাথাটা ভেঙ্গে দেখি কি রাসায়নিক কার্য চলে ভিতরে। থাক করলাম না , মাস্টারমশাই বলে কথা।
ভালো থাকবেন। আর বেশি করে টিউন করে তাড়াতাড়ি ১৫০০ টিউন করতে হবে কিন্তু অপেক্ষায় রইলাম।

    টেকটিউনস সুপ্রিম টিউনারের মাথা ভাঙতে চাইলো ভারতীয় নাগরিক

    আমি যদি একজন হলুদ সাংবাদিক হতাম তাহলে এই শিরোনামটা দিয়ে নিউজ করে এভাবে মজা করতে পারতাম। আসলে আমারও মাঝে মাঝে সানিম ভাইয়ের মাথা ভাঙতে ইচ্ছে করে। প্রথম টিউমেন্টে তার মাথায় বোম ফেলার তো হুমকিও দিয়েছি। আপনার সাথে আমি শতভাগ সহমত। সানিম ভাইয়ের ১৫০০ তম টিউনের প্রত্যাশায় পুরো টেকটিউনস পরিবার (টেকটিউনস পরিবার তত্ত্বের প্রতিষ্ঠাতাও সানিম ভাই)।

      হেডিং দেখে মজা পাইলাম ভাই 🙂 তয় পরিবার তত্ত্বের প্রতিষ্ঠাতা আমি এটা আপনি কোথা থেকে পাইলেন? আমার কমিউনিটির চাইতে পরিবার বলতে ভালো লাগে বলেই বলি। তবে প্রতিষ্ঠাতা মনে হয় আমি না।

    আমি সত্যিই অবাক হয়েছি এটা দেখে যে আপনি আমাকে একটা টিউন উৎসর্গ করেছেন। ভালোবাসার জালে আবদ্ধ করে ফেললেন ভাই। কোনদিন পালাতে চাইলেও এই জাল ছেঁড়া যাবে না মনে হয়। তয় মাথা ভাঙলে জৈব সার পেতে পারেন। মানুষ হিসাবে আমি চরম আলসে। তাই আম্মা মাঝে মাঝে বলতেন আমার মাথায় নাকি জৈব সার আছে।

    তবে আপনার জন্যও কিন্তু আমরা টেকটিউনসে আসি। কারন একজন টিউনার শুধু টিউন লিখেনই না অন্যদেরটাও পড়ে থাকেন। আপনারা না থাকলে হয়তো আমাদের শুধু লিখেই যেতে হতো। সুন্দর লেখার ধারা অব্যাহত রাখবেন অভিষেক ভাই।

অনেক সুন্দর টিউন

ভাবতাছি এক টা কিনে ফেলব। সুন্দর টিউন উপহার দেবার জন্য ধন্যবাদ।

    কিনে ফেলেন তাহলে! তারপর আমাদের একটু দেখায়েন। একখান ছবি তুললেও তুলতে পারবেন। কিন্তু ভিডিও করতে দিমুনা কইলাম 😛

সুন্দর টিউন বলতেই হবে। তবে আপনি যে সফটওয়্যার এর এক ঘেয়েমি থেকে বেড়িয়ে এসে এতো সুন্দর একটা বিষয় তুলে ধরলেন, এটা আরো বেশী ভাল লাগল।যদিও কিছু টিউন পেয়েছি। কারন সফটওয়্যার তো আছেই, পাশাপাশি নতুন আরো কিছু হয়তো অপেক্ষা করছে আমাদের জন্য। আপনাকে ধন্যবাদ +++++++

    আপনি মনে হয় সানিম মাহবীর ফাহাদ ভাইয়ের সবগুলো টিউন পড়েননি। উনি যে শুধু সফটওয়্যার নিয়ে লিখেছেন তা কিন্তু না। উনার টিউনের ৫০ ভাগ জুড়ে আছে অসাধারন সব তথ্যভিত্তিক টিউন। তবে সানিম ভাইয়ের মতো সফটওয়্যার রিভিউ আমি বিগত এক থেকে দেড় বছরে দেখিনি। তাছাড়া সানিম ভাই কখনো পুরাতন কিছু লিখেননি। সানিম ভাইয়ের টিউন মানেই নতুন কিছু।

      পরিসংখ্যানে সামান্য সমস্যা থাকতে পারে আপনার। বিরক্তিকর সফটওয়্যার রিভিউ পরিমাণে বেশি থাকতে পারে। তবে মাঝে মাঝে বৈচিত্র রাখার চেষ্টা করেছি মাত্র।

    হুম, আমারও একঘেয়েমি ধরে যায় সফটওয়্যার নিয়ে লিখতে। তবে কিছুটা বৈচিত্র রেখেছিও টিউনগুলোতে। পরিচিত সব বিভাগেই তো কম বেশি টিউন করি। আশা করি সামনে কোন বিষয়েই একঘেয়েমি থাকবে না।

    টিউমেন্টের জন্য ধন্যবাদ রাশেদ ভাই।

      মাঝে সফটওয়্যার জনিত টিউন একটু বেশী ছিলো, আমি তাই বলার চেষ্টা করেছি। ফাহাদ ভাই, সেন্টু ভাই, আইটি সরদার ভাই এবং আরো অনেক টিউনার আছে যাদের জন্যই বা যাদের বৈচিত্র্যময় টিউনের জন্যই হয়তো টিটিতে পড়ে থাকি।

ভাইয়া, এইগুলা বাংলাদেশে কই পাব? আপনার উপর ২ ১ টা এক্সপ্রিমেন্ট করতাম আর কি 😛

    আফনেরা ইরাম করে আমারে ডর দেহান কেরে? আমি কিতা করছি? বাংলাদেশে এইগুলো পাওয়ন যাইতো না। এগুলো বিদেশ থেইক্কা আনতে হইবো!

Level 0

aliexpress , dealsmachine এ ১৫ ডলারের মধ্যেও পাওয়া যায় তবে সাইজে খুবই ছোট ।

মাঝখানে তো ঠিক করেই নিয়েছিলাম যে আর টিটিতে আসব না, কিন্তু আপনাদের এই চরম লেভেলের টিউনগুলোর লোভ সামলাতে পারিনা, কি করি বলেন তো ? 🙂

    ভালোবাসলেই কেবল অভিমান করা যায়। আশা করি সব অভিমান ভুলে টেকটিউনসের সাথেই থাকবেন। আপনাদের জন্যই তো আমাদের সব লেখনি।

৯৯৯ ডলার??????????

ধন্যবাদ সুন্দর একটা বিষয়ে টিউন করার জন্য

অসাধারণ হয়েছে ভাইয়া। হৃদয় থেকে ধন্যবাদ জানালাম।

https://www.techtunes.co/adobe-flash/tune-id/388418 সানিম মাহবীর ফাহাদ ভাই এই টিউনটি দেখার আমন্ত্রণ রইলো। একটি বেয়াড়া অনুরোধ এবং অবশ্যই কড়া ভাষায় টিউমেন্ট করবেন।

সবগুলো উড়ুক্কু পাখি দেখে শেষে খিচুড়িমার্কা রিকোয়ারমেন্ট সমেত অমার একটা মনে ধরছে……হ্যাঁ ওইটা লিষ্টে নাই, অর্ডার দিয়ে বানাতে হবে :mrgreen: না হয় ঢাললামই টাকা একটু জলে- বিকালে মাঠে দৌড়াতে না পারার দু:খ যদিবা কপ্টার উড়াইয়াও মেটে তাইলে কার কী- অামারই বা কী- ড়শিরই বা কী? কী অার অাছে গেবনে 😆

ড্রোনগুলা বিনা টিকিটে প্রদর্শনের জন্য ধইন্যা 🙂

******টাইপো: অপ্রতিদ্বন্দি->অপ্রতিদ্বন্দ্বী

    একখান কিনে ফেলেন? অন্য মানুষের বাসার পাশ দিয়েও উড়াইতে পারবেন মনে হয়। অবসর বিনোদন বলে কথা!

    টিউমেন্টের জন্য ধইন্যা 🙂

কোনটা রেখে কোনটা কিনবো ? নাকি সবগুলাই কিনবো ?
এতগুলো শেয়ার করে বিপদে ফেলে দিলেন । বাছাই করতে সমস্যা হচ্ছে । 🙂
অনেক ধন্যবাদ অজানা এক বিষয় শেয়ার করার জন্য ।

    আরে প্রোফাইল পিকচার পরিবর্তন করে তো অচেনা হয়ে গেছো। চিনতেই পারছিলাম না। যাহোক, কিনে নাও একটা। একাধিক কিনলে আমাকে একটা গিফট দিও 😛

আপনার টিউন পড়তেই মাঝে মাঝে টেকটিউন্স এ আসি।আপনার সব গুলো টিউনই হিট ।আজকের টা তো আরো সুন্দর হয়েছে।মাঝে মাঝে মন চায় কমেন্ট করি ,লগ ইন এর আলসেমিতে আর হয়ে উঠে না, মনের কথা মনেই রয়ে যায়…..চালিয়ে যান, আরো সুন্দর সুন্দর টিউনের অপেক্ষায় রইলাম।

    আপনার মেন্টাল সাপোর্টই আমার কাছে অনেক গুরুত্বপূর্ণ। টেকটিউনসের পাশেই থাকুন।

সব গুলোই তো অসাধারন,কোনটা রেখে কোনটা দেখবো…
আশা করি অদূর ভবিষ্যতে কোন এক সময় অধিক ফিচার নিয়ে সাধ্যের নাগালে আসবে,উপজেলার কোন মার্কেট থেকে বাচ্ছাকে কিনে দিবো 😛 😛
#বাংলায় ড্রোন নিয়ে খুবই তথ্যবহুল একটি টিউন,সংগ্রহে রাখলাম।
ধন্যবাদ সব সময়…

    আমারও ইচ্ছে খেলনা বিমানের মতো অদূর ভবিষ্যতে আমার পরবর্তি প্রজন্মকে ড্রোন কিনে দিবো।
    **সুন্দর টিউমেন্টের জন্য ধইন্যা 🙂

প্রথম ড্রোনটার দাম সম্পর্কে কিছু বলা নাই । দামটা একটু জানায়া দেন প্লিজ ।

পাইছি ভাই ! 40,000 টাকা (499 ডলার) ( এত দাম কেন ভাই ? ) 15,000 – 20,000 এর মধ্যে হলে নিতাম . . . . . . . . কষ্ট পাইলাম

Intel Core i7 6700K e core 4 & AMD Bulldozer FX-8350 e core 8 ta konta beshi valo?

এইটা একটু দেখেনতো . . . . . . এটা কি বাংলাদেশী সাইট ? এখান থেকে কি কিনা জাবে ?

https://bangladesh.jadopado.com/search?sort=products&query=drone&numericFilters=&hitsPerPage=24&page=0&facets=%5B%22categories_calculated%22%5D&facetFilters=%5B%5D

চলো তাহলে এই বার ছোট বেলার সপ্ন পুরন হবে , কিছু সপ্ন বড় হয়েও যে এত আওনন্দ দিবে তা ভাবিনি।

ধন্যবাদ ফাহাদ ভাই