ইউটিউব থেকে কি ভাবে উপার্জন করবেন?

টিউন বিভাগ আউটসোর্সিং
প্রকাশিত
জোসস করেছেন

ভিডিও শেয়ারিংয়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম ইউটিউব। প্রতিমাসে ৮০ কোটিরও বেশি মানুষ এসে ঢুঁ দেয় এখানে। বাংলাদেশ থেকে সবচেয়ে বেশি দেখা হয় যে ওয়েবসাইট সেটি হলো ইউটিউব। সার্চ ইঞ্জিন গুগল ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুককে পেছনে ফেলে বর্তমানে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে ভিডিও স্ট্রিমিং সাইট ইউটিউব! শুধু বাংলাদেশেই নয়, বিনামূল্যে ভিডিও শেয়ারিং সাইট হিসেবে বিশ্বজুড়ে ইউটিউব দারুণ জনপ্রিয়। এখানে যেমন ইচ্ছে মতো ভিডিও দেখা যায় তেমনি চাইলে নিজেই চ্যানেল তৈরি করে আপলোড করা যায় ভিডিও।

বানিয়ে ফেলুন ইউটিউব চ্যানেল : নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেল হতে পারে নিজেকে মেলে ধরার অসাধারণ একটি উপায়। প্রথমেই আপনাকে জি-মেইল আইডির মাধ্যমে ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করে নিতে হবে। YouTube.Com-এ গিয়ে জিমেইল আইডির মাধ্যমে Signup করলেই আপনার ইউটিউব চ্যানেল তৈরি হয়ে যাবে। তারপর বামপাশের অপশন হতে My Channel-এ ক্লিক করলে আপনার চ্যানেল দেখতে পারবেন। আপনার চ্যানেলটির নামের ওপরে Video Manager নামে আরেকটি অপশন দেখতে পাবেন। তাতে ক্লিক করুন। এখন বামপাশের চ্যানেল অপশনে ক্লিক করার পর ডানে অনেক অপশন দেখতে পারবেন। সেখানে আপনার নামের পাশে থাকা Partner থেকে মোবাইল নম্বর দিয়ে Partner Verified করতে হবে। Partner Verified না করলে আপনার ভিডিওগুলোকে Monetized করতে পারবেন না।

কীভাবে আয় করবেন : আপনি যদি জনপ্রিয় ভিডিও তৈরি করতে পারেন বা আপনার চ্যানেল জনপ্রিয় হয়, তাহলে আপনি ইউটিউবের অ্যাডসেন্স পার্টনারশিপ থেকেই একটা অফার পেতে পারেন। তবে এজন্য প্রথমেই আপনার ভিডিওটি আপলোড করুন। আপলোড হওয়ার পর ভিডিওটির নিচের দিকে Monetized অপশন দেখতে পারবেন। এখানে Monetize with ads অপশনে ঠিক চিহ্ন দিয়ে দিলেই আপনার ভিডিওটিতে এখন থেকে গুগল বিভিন্ন বিজ্ঞাপন দেখাবে। তবে সাবধান কোনো ধরনের কপি করা ভিডিও আপলোড করবেন না। তাহলে ইউটিউব যে কোনো সময় আপনার Monetized অপশন নিষ্ক্রিয় করে দেবে।

এখন ইউটিউব চ্যানেলের মাধ্যমে গুগল অ্যাডসেন্সের জন্য আবেদন করতে হবে। এই অ্যাডসেন্সের মাধ্যমে আপনি ডলার উত্তোলন করবেন। এখন আবার বামপাশের Channel অপশন হতে Monetization অপশনে ক্লিক করে ডানপাশে Enable Monetization বাটন হতে Monetization সক্রিয় করে নিতে হবে। এরপর নিচের দিকে How Will Paid নামে আরেকটি অপশন পাবেন। সেখানে associate an AdSense account-এ ক্লিক করে ঘবীঃ ক্লিক করে জিমেইল আইডির মাধ্যমে লগইন করে যাবতীয় তথ্য দিলেই অ্যাডসেন্স চালুর অনুরোধ চলে যাবে। এখন ২ থেকে ৩ দিনের মধ্যে অ্যাডসেন্স অ্যাপ্রুভ মেইল আপনার ইনবক্সে চলে আসবে।

আরো পড়ুন,
কীভাবে আয় বাড়াবেন

Level 0

আমি শারমিন খাতুন। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 3 বছর 6 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 4 টি টিউন ও 0 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 1 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস