ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্টারনেটের গতি বাড়ল

টিউন বিভাগ খবর
প্রকাশিত

বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম ।
কেমন আছেন সবাই? আশা করি ভাল আছেন।আজ বেশ কয়েকদিন পর আবার টিউন করছি।
সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম আপনারা সবাই শুনেছেন। সেখানে ইন্টারনেটের গতি চার গুণ বাড়ানো হয়েছে। এই ইন্টারনেট সেবা দেওয়া হচ্ছে তারহীন ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কের মাধ্যমে। পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের একমাত্র ছাত্রীনিবাসও তারহীন ইন্টারনেটের আওতায় আনা হয়েছে। গত বুধবার সন্ধ্যায় উপাচার্য মো. সালেহ উদ্দিন ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কের উদ্বোধন করেন। এ সময় কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের প্রধান মুহম্মদ জাফর ইকবাল, ছাত্রীনিবাসের প্রাধ্যক্ষ ইয়াসমীন হকসহ অন্য শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।
এর ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্টারনেট এর গতি ৮ এমবিপিএস হল যা আগে ছিল ২ এমবিপিএস। সূত্র মতে, আমাদের দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ই প্রথমে ফাইবার অপটিক কেবেলর সঙ্গে যুক্ত হয়। এর পর থেকে ক্যাম্পাসের সর্বত্র ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কিংয়ের প্রক্রিয়া শুরু হয়। আর এসব সুবিধার ফলে ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীরা তথ্যপ্রযুক্তির দিক থেকে অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের তুলনায় দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। সবার জন্য কবে যে এ রকম উন্মুক্ত হবে?

ADs by Techtunes ADs

সবার কাছ থেকে কমেন্ট আশা করছি।

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি সাইফুর রহমান (হীরক)। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 10 বছর 9 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 17 টি টিউন ও 238 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 0 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

E-mail: [email protected] Personal Blog: www.hirokbd.wordpress.com


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে যাইতে মন চায় 🙂

ভালো খবর , বেশ কিছুদিন আগেই ব্যান্ডউইডথ বাড়ানো হবে এমন খবর শুনেছিলাম । কিন্তু আফসোস আমাদের ( মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের ) স্পীড আর বাড়ে না , বরং দিনকে দিন কমে 🙁

তথ্যপ্রযুক্তির প্রায় সব কিছুই প্রথম হয় শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে। ওপেন সোর্স বুট ক্যাম্প, গনিত ওলিম্পিয়াড, ফাইবার অপটিক ব্যাকবোন, ওয়াই-ফাই নেট স্থাপন, এস-এম-এস ভিত্তিক ভর্তি, ২ এমবিপিএস ইন্টারনেট লাইন ইত্যাদি সবকিছুরই পথপ্রদশক এই বিশ্ববিদ্যালয়। ৮ এমবিপিএস লাইন আরো মাসখানিক আগেই এসেছে, উদ্ভোধন হল পরশু।

আমরা থাকাকালে রাতে ল্যাব এ থাকতাম, আর কাজ এর পাশাপাশি মুভি নামাতাম ২০০-২৫০ কিলোবাইট/সেকেন্ড এ। তখন ২ এমবিপিএস লাইন ছিল, দুই ঘন্টায় মুভি নেমে যেতো । সেদিন এক জুনিয়র ফোনে বললো, ভাইয়া, সফটওয়ার/অপারেটিং সিস্টেম/মুভি সরকিছুর আর্কাইভ করতেছি, আপনের কিছু লাগলে কইয়েন। আমি বললাম স্পিড কেমন?

জুনিয়র বলল, ভাইয়া, এখন আমরা মুভি নামাতে দিয়ে ক্যন্টিন থেকে খাওয়া-দাওয়া সেরে এসে সেই মুভি দেখতে বসে যাই।

15KB/s kobe je 512kbps এ জাব চিন্তা করছি ……………8mbps ……………সপ্ন দেখতে সুরু করলাম

তা ভাই ছাত্ররা গড়ে কত করা পেল দয়া করে বলবেন

যেটুই হোকনা কেন, আশার খবর তো বটে। ধন্যবাদ।

ভাইজান, আমি শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিভাগের ছাত্র। এখন তো জটিল স্পিড। সেদিন মুভি ডাউনলোড করছি ৪৫০-৫০০/কেবিপিএস গড়ে।আর রাতের বেলা তো সেইরকম স্পিড।আগে বাসায় গ্রামীন ফোনের P2 প্যাকেজ ব্যবহার করতাম।এখন সারাদিন – রাত ল্যাব এই থাকি।

সবাইকে ধন্যবাদ কমেন্টের জন্য। আমার নেট স্পিড খুব কম যদিও ব্রডব্রান্ড । তাই এই সাইটে ঢুকতে একটু সমস্যা হচ্ছে।

ডিজিটাল এর হাওয়া লেগেছে 😉

ভাইজান, আমি তো ব্যাগ নিয়া রওয়ানা হইয়া গেছি!!! শাহজালাল এ দারোয়ানের চাকরী হইলেও নিয়া নিমু। কন্ডিশন একটাই সারাদিন ইন্টারনেট দিয়া রাখতে হইব। 🙂 🙂 🙂