ADs by Techtunes ADs
ADs by Techtunes ADs

আইফোনের জন্য সেরা ১০টি ক্যামেরা এবং ফটো এডিটিং অ্যাপ

ফটোগ্রাফি অনেকেই শখের বসে করেন। আর স্মার্টফোন আমরা সব সময় সাথে নিয়ে যাই বলেই আমরা বেশিরভাগ সময় বিশেষ এবং গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তগুলো আমরা স্মার্টফোন দিয়েই ধারণ করে ফেলি। কারণ দিন দিন স্মার্টফোন গুলো যত উন্নত হচ্ছে, স্মার্টফোনের ক্যামেরাও এর সাথে সাথে উন্নত হচ্ছে। আর যদি বলি ক্যামেরা কোয়ালিটির কথা তবে ভাল ব্রান্ড এবং মোটামুটি প্রাইস রেঞ্জের স্মার্টফোনগুলোর ক্যামেরা আসলেই খুব ভাল। এর মধ্যে যারা দামি স্যামসাঙ এবং অ্যাপেল এর ফোনগুলো ব্যবহার করেন সেগুলো সম্পর্কে তো তারা জানেনই।

ADs by Techtunes ADs

আমরা স্মার্টফোন দিয়ে ছবি তোলার জন্য সাধারণত স্মার্টফোনের ডিফল্ট ক্যামেরা অ্যাপই ব্যবহার করি। স্মার্টফোনের ডিফল্ট ক্যামেরা অ্যাপ স্মার্টফোনের জন্য বিশেষ ভাবে তৈরি করা হলেও বেশিরভাগ ডিফল্ট অ্যাপেই অনেক ফিচার থাকে না। যেমন আইএসও বা অ্যাপারচার ডিফল্ট ক্যামেরা অ্যাপ অটোমেটিক ভাবেই ঠিক করে নেয়। কিন্তু যদি আপনি সুন্দর ছবি তুলতে চাই এবং ছবিতে প্রফেশনাল ভাব আনতে চাই তবে আমাদের বিশেষ কিছু ফিচার দরকার হবে, সেগুলো ডিফল্ট ক্যামেরা অ্যাপ আপনাকে দিতে পারবে না।

তাই আজকে আমি আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি আইফোনের জন্য ফিচার সমৃদ্ধ ১০টি ক্যামেরা এবং ফটো এডিটিং অ্যাপ।

হলিডে(Halide)

আপনি যদি একজন প্রফেশনাল ফটোগ্রাফের হয়ে থাকেন এবং স্মার্টফোন দিয়ে ফটোগ্রাফি করতে চান তবে আপনার অবশ্যই এই অ্যাপটি ব্যবহার করে দেখা দরকার। কারণ আপনি একটি ডিজিটাল এস.এল.আর ক্যামেরার প্রায় সব ফিচারই হলিডে অ্যাপে পাবেন। যদিও আপনি এই অ্যাপটিকে একটি নরমাল ক্যামেরা অ্যাপ হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন।

কিন্তু মাত্র একবার সোয়াইপ করেই আপনি এই অ্যাপ দিয়ে আপনার আইফোনকে প্রফেশনাল ক্যামেরা বানিয়ে ফেলতে পারবেন। হলিডে অ্যাপে আপনি অনেক ধরনের জিনিস নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন। যেমন ফোকাস, আইএসও, সাটার স্পিড। এমনকি আপনি হলিডে অ্যাপে এক্সপোজার  ঠিক করতে পারবেন।

অ্যাপটি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।

প্রিসমা(Prisma)

আমাদের দেশে গত বছর প্রিসমা অ্যাপটি বিপুলভাবে ব্যাবহৃত হয়। প্রথমে শুধুমাত্র আইফোনের জন্য অ্যাপটি বের হলেই এর জনপ্রিয়তা দেখে অ্যাপটির ডেভেলপাররা প্রিসমা অ্যাপটিকে আন্ড্রয়েডের জন্য বের করে। আমার মনে হয় আপনি ইতিমধ্যে প্রিসমা ব্যবহার করে ফেলেছেন। তারপরেই আপনি চাইলে আবার ব্যবহার করতে পারেন।

কারণ এই অ্যাপ অন্য সাধারণ ফিল্টার অ্যাপের মত না। প্রিসমা অ্যাপটি আপনার ছবিকে অনেক বিখ্যাত শিল্পীর আকা ছবির মত করে ফেলতে পারে। এই অ্যাপটি আপনার ফোনে ইনস্টল করা থাকলেও ছবি এডিট এর আসল কাজ হয় তাদের সার্ভারে। তাই আপনার প্রিসমা ব্যবহার করলে আপনার স্মার্টফোন স্লো হবে না।

অ্যাপটি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।

ADs by Techtunes ADs

গুগল ফটোস্ক্যান(Google PhotoScan)

গুগল এর একটি অসাধারণ ক্যামেরা অ্যাপ গুগল ফটোস্ক্যান। কম্পিউটারে ফটো এডিট করা সহজ হলেও, পুরানো প্রিন্ট করা ছবিগুলোকে এডিট করে সুন্দর বানানো অনেক সমস্যা। কারণ এর জন্য প্রথমে প্রিন্ট করা ছবিগুলোকে স্ক্যান করে এডিট করতে হয়। এবং এটি অনেক সময় সাপেক্ষ।

আবার অনেকের কাছেই ফটো স্ক্যানার থাকে না। তাই আপনি গুগল ফটোস্ক্যান অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারেন। এই অ্যাপটি ব্যবহার করে আপনি যেকোনো পুরানো ছবিকে ডিজিটাল রুপ দিতে পারবেন। ফলে ছবি হারানোর আর ভয় থাকবে না।

অ্যাপটি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।

ইনস্টাগ্রাম(Instagram)

যদিও যদিও ফটো শেয়ারিং অ্যাপ। তারপরেও আপনার তোলা খুব সাধারণ ছবিকে আকর্ষণীয় করতে ইনস্টাগ্রামের আছে অনেকগুলো ফিল্টার এবং এডিটিং টুল এর কালেকশন। আপনি যদি স্মার্টফোন ব্যবহার করে থাকেন এবং ইন্টারনেট এর সাথে কানেকটেড থাকেন তাহলে আমার মনে হয় আপনি ইনস্টাগ্রাম সম্পর্কে জানেন।

অনেকেই আবার ব্যবহারও করেন। ইনস্টাগ্রাম অনেক বেশি জনপ্রিয় কারণ ইনস্টাগ্রাম খুব সহজেই ব্যবহার করা যায়। এবং সবচেয়ে বড় কথা এটা ফ্রী। এবং এটি ফেসবুক এর সাথে কানেকটেড থাকে।

অ্যাপটি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।

পিক্সেলার(Pixlr)

আইওএস এর জন্য আমার দেখা বেস্ট ফটো এডিটিং অ্যাপ পিক্সেলার। আপনি যদি এই অ্যাপটি দিয়ে ছবি এডিট করতে শুরু করেন তাহলে সময় যে কখন পার হয়ে যাবে বুঝতেই পারবেন না। এই অ্যাপে ফটোশপের মত লেয়ার সিস্টেম আছে। তাই ফটো এডিট করা অনেক সহজ। এবং ফটোতে এফেক্ট দেয়া খুব সহজ। এবং যদি এডিটে কোন ভুল হয় সেটাও ঠিক করতে পারবেন এই অ্যাপ দিয়ে।

ADs by Techtunes ADs

অ্যাপটি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।

ফটোর(Fotor)

আপনি যদি ফিচার সমৃদ্ধ কিন্তু সহজে এডিট করা যায় এমন একটি ফটো এডিটর খুঁজে থাকেন। তাহলে চিন্তা না করে এই অ্যাপটি ডাউনলোড করে ফেলুন। অ্যাপ স্টোরে ফ্রী ফটো এডিটর খুঁজে পেতে অনেক সমস্যা। তবে এই অ্যাপটি ফ্রী। এই অ্যাপ দিয়ে আপনি ছবিও তুলতে পারেন।

এবং এই অ্যাপ দিয়ে ছবি তোলার জন্য একটি অসাধারণ ফিচার হলো এই অ্যাপের ফোকাস করার অপশনটি। এটি অনেক কাজের। এবং আপনার ছবির সাবজেক্ট এর ব্যাকগ্রাউন্ড ব্লার করতে আপনাকে অনেক সাহায্য করবে।
অ্যাপটি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।

লাইফকেক(LifeCake)

আপনার তোলা ছবিগুলোকে সাজিয়ে রাখতে আপনি লাইফকেক অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারেন। এবং আপনি চাইলে ছবিগুলোকে সময় অনুযায়ী দেখতেও পারবেন। অ্যাপটি আপনি অ্যাপ স্টোর থেকে ফ্রিতে ডাউনলোড করতে পারবেন।
অ্যাপটি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন

কুইক(Qwik)

আপনি যদি আপনার তোলা ছবিতে অনেক ফিল্টার ব্যবহার করেন তাহলে এই অ্যাপটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন। কারণ এই অ্যাপে প্রায় ৬০০ এর মত ফিল্টার আছে। সেখান থেকে আপনার পছন্দ মত ফিল্টার দিয়ে আপনার ছবিকে সুন্দর বানিয়ে ফেলতে পারেন।

এই অ্যাপে ছবি এডিট করার জন্য অনেক কাজের কিছু টুল আছে। অ্যাপটি নিয়মিত আপডেট হয় তাই আপনি এই অ্যাপ থেকে নতুন নতুন ফিচার পাবেন।

অ্যাপটি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন

ADs by Techtunes ADs

লেন্সিকাল(Lensical)

ফটোতে বিভিন্ন এফেক্ট দেয়ার জন্য এই অ্যাপটি অনেক কাজের। যদিও অ্যাপটি বড় স্ক্রীন এর আইফোনে ভাল কাজ করে। অর্থাৎ আইফোন ৬ বা ৭ এ এই অ্যাপটি ভালভাবে কাজ করবে। তবে যাদের আইফোন ৫ তাদের ভয় পাওয়ার কিছু নেই। কারণ আপনাদের ফোনেও এটি খুব ভালভাবে কাজ করবে।

অ্যাপটি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।

পিক্সেল ওয়াকার(PixelWakker)

অন্য সব অ্যাপ থেকে এই অ্যাপটি একদম আলদা। কারণ এই অ্যাপ আপনার ছবিকে ডট, লাইন, কালার অনুযায়ী আলাদা করে ফেলতে পারে। পিক্সেল ওয়াকার অ্যাপটি আপনার ছবিকে একবারে অন্যরকম করে ফেলতে পারে। আমার দেখা একটি ভিন্ন ধরনের অ্যাপ এটি। এর ফিচারগুলো আপনি অন্য কোন অ্যাপে পাবেন না।

অ্যাপটি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন।

আজ এ পর্যন্তই। সবাই ভাল থাকবেন, সুস্থ থাকবেন। আর যদি টিউনটি বুঝতে কোন সমস্যা হয় তা অবশ্যই জানাবেন। টিউনটি সম্পর্কে আপনার টিউমেন্ট জানাতে টিউমেন্ট করুন।

ADs by Techtunes ADs
Level 0

আমি আশরাফুল ফিরোজ। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 6 বছর 3 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 77 টি টিউন ও 36 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 4 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস