যেভাবে আপনার অ্যান্ড্রোয়েড ফোনকে অবিকল Apple iOS এর মতো করবেন! A-Z সচিত্র মেগাটিউন!

————————–— بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ ————————–—

সুপ্রিয় টেকটিউনস কমিউনিটি, সবাইকে আন্তরিক সালাম এবং শুভেচ্ছা জানিয়ে শুরু করছি অ্যান্ড্রোয়েড ফোনকে অবিকল Apple iOS এর মতো ব্যবহারের উপায় সম্বলিত আমার আজকের টিউন।

বর্তমান সময়ে প্রযুক্তিপণ্যের তালিকায় অ্যাপলের পণ্যগুলো যে সবার আগে রয়েছে এ ব্যাপারে আমাদের কারও বিন্দুমাত্র সন্দেহ থাকার কথা নয়। কারণ সুন্দর ডিজাইন, অদ্বিতীয় ইউজার ইন্টারফেইস, স্পিড সবকিছু মিলিয়ে অ্যাপলের প্রোডাক্টের কোন তুলনা চলে না। তবে প্রোডাক্টের বিচারে অ্যাপল যতোই এগিয়ে থাক দামের কথা চিন্তা করলে আমাদের অধিকাংশের অ্যাপলের প্রোডাক্ট কেনার সামর্থ্য হয় না। উদাহরণ হিসাবে iPhone এর কথায় ধরুন না। আমাদের কয় জনের হাতে iPhone রয়েছে? অথচ ভালো একটা আইফোনের স্বপ্ন আমরা কমবেশি সবাই দেখি। কথায় আছে, যারে পছন্দ করি তার বাড়ির কুকুরও দেখতে সুন্দর লাগে। আর iPhone পছন্দ করার কারণে এর স্টাইলগুলো আমরা আমাদের ফোনগুলোতে পেতে চাই। এ কারণে অনেকে বিভিন্ন ধরনের Launcher ব্যবহার করে থাকে। তবে দুধের সাধ মাঝে মাঝে ঘোলে মিটানোর সামান্য উপায় থাকলেও আমাদের মনে শান্তি আসে না। কারণ অ্যান্ড্রোয়েড এর Launcher পরিবর্তন হলেও অধিকাংশ প্রোগ্রাম অ্যান্ড্রোয়েড এর মতোই থেকে যায়। আজ আমরা দেখবো কীভাবে অ্যান্ড্রোয়েড ফোনকে অবিকল iPhone এর মতো করতে হবে। মানে অ্যান্ড্রোয়েড অপারেটিং সিস্টেমকে Apple iOS এর মতো। এর জন্য প্রয়োজন হবে আমাদের একাধিক অ্যাপ্লিকেশন। তাদের কোনটা পেইড ভার্সন আবার কোনটা ফ্রি। তবে সবকিছু মিলিয়ে আজ পুরোটাই ফ্রিতেই পাবেন। তো চলুন তাহলে শুরু করা যাক।

iPhone এর মতো লকস্ক্রিন - iPhone Lockscreen APK

প্রথমেই বলেছি অ্যান্ড্রোয়েডকে iPhone এর মতো করতে হবে তার সবকিছুই পরিবর্তন করতে হবে। এ কারণেই লকস্ক্রিণ দিয়ে শুরু করলাম। অ্যাপলের মতো লকস্ক্রিণ পেতে হলে আপনার প্রয়োজন হবে iPhone Lockscreen অ্যাপটি। প্লেস্টোর কিংবা ইউজার ক্লাউড থেকে অ্যাপটি নামিয়ে নিয়ে প্রথমেই ইনস্টল করে ফেলুন। সম্পূর্ণ ফ্রিতেই পাবেন বলে সারা জীবন আপডেটও ফ্রি।

গুগল প্লে-স্টোর থেকে ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন (ফ্রি ভার্সন)

iLauncher – অ্যান্ড্রোয়েডকে বানিয়ে ফেলুন iOS

এবার আসি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ধাপে। অ্যান্ড্রোয়েডকে সম্পূর্ণরূপে iOS এ রূপান্তরের জন্য এবার প্রয়োজন হবে iLauncher। এটা ইনস্টল করার মানেই হলো আপনার ৬০ ভাগ কাজ সম্পন্ন হওয়া। কিন্তু দুঃখের কথা অ্যাপটি ফ্রি না। এটা ব্যবহার করতে হলে আপনাকে মাত্র ২.৭ ডলার গুনতে হবে (মজা করলাম!)। যাহোক, প্রয়োজন হলে নিচের ডাউনলোড লিঙ্ক থেকে iLauncher টি ঝটপট নামিয়ে ফেলুন। তারপর স্বাভাবিক ভাবেই ইনস্টল করে ফেলুন।

গুগল প্লে-স্টোর থেকে ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন (প্রো ভার্সন) | ইউজারস ক্লাউড লিঙ্ক (পেইড)

যাদের ফোনে iLauncher অ্যাপটি ভালোভাবে কাজ করবে না কিংবা যারা পাইরেটেড অ্যাপ ব্যবহার করতে উৎসাহী না তাদের জন্য একই রকম আরও একটি অ্যাপ হলো One Luancher। এতে আপনি iLauncher এর অনুরূপ অপশনগুলো পাবেন। সুতরাং ডাউনলোড করতে চাইলে নিচের লিঙ্কে খিঁইচ্চা ক্লিক মারেন।

গুগল প্লে-স্টোর থেকে ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন (ফ্রি ভার্সন)

iNoty – পরিবর্তন করুন স্ট্যাটাসবার

এবার অ্যান্ড্রোয়েড এর ডিফল্ট স্ট্যাটাসবার বদলে ফেলে iPhone লুক তৈরী করার পালা। এর জন্য আপনার ডাউনলোড করতে হবে iNoty অ্যাপটি। এটাও একটা পেইড অ্যাপ তবে আপনারা ফ্রিতেই পাবেন। iNoty অ্যাপটি অতিরিক্ত নোটিফিকেশন কাউন্টার হিসাবেও কাজ করবে। যা সত্যিকার অর্থেই iPhone এর মতো অনুভুতি দিবে।

গুগল প্লে-স্টোর থেকে ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন (প্রো ভার্সন) | ইউজারস ক্লাউড (পেইড)

iPhone Control Center – একের ভেতর অনেক কিছু

iPhone Control Center হলো অ্যান্ড্রোয়েড ডিভাইসের আর্মি নাইফ টুলের মতো টুলস। মানে প্রয়োজনীয় সবকিছু একসাথে পাবেন কন্ট্রোল সেন্টারে। সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত অ্যপস, সেটিংস, ইনস্টল অ্যাপস সবকিছুই নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন iPhone Control Center দিয়ে।

গুগল প্লে-স্টোর থেকে ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন (ফ্রি ভার্সন)

iPhone Keyboard – টাইপ করুন আইফোনের মতো করে

iPhone Keyboard অ্যাপটি আপনার অ্যান্ড্রোয়েড এর ডিফল্ট কিবোর্ডকে আইফোনের কীবোর্ড দিয়ে বদলে দিবে। তবে খুশির কথা হলো আপনারা যারা জনপ্রিয় Ridmik কিবোর্ড ব্যবহার করেন তাদের জন্য এই অ্যাপটি লাগবে না। এর পরিবর্তনে রিদ্মিক কীবোর্ডের থিম থেকে আইফোন সিলেক্ট করে দিলেই কাজ হয়ে যাবে। তবে এই কীবোর্ড ব্যবহারের ক্ষেত্রে মনে রাখবেন এটা দিয়ে কেবল ইংরেজি লেখা যাবে।

গুগল প্লে-স্টোর থেকে ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন (ফ্রি ভার্সন)

iPhone Camera – ছবি তুলুন আইফোনের মতো করে!

iPhone Camera অ্যাপটি আপনাকে অবিকল আইফোনের মতো করে ছবি তুলতে সাহায্য করবে। যদিও ছবির কোয়ালিটি নির্ভর করে কতো ভালো মানের হার্ডওয়্যার ব্যবহার করছেন তার উপর। তারপরেও এই ক্যামেরা আপনাকে তুলনামূলক ভালো ছবি তুলতে সাহায্য করবে।

গুগল প্লে-স্টোর থেকে ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন (ফ্রি ভার্সন)

Quick Touch – একের ভেতর অনেক কিছু

আপনি যদি আগে iPhone ব্যবহার করে থাকেন তাহলে নিশ্চয় জানেন আইফোনে Quicktouch বাটন আছে। আমার অ্যান্ড্রোয়েড কিটকাট ফোনেও একই ধরনের Quicktouch বাটন থাকলেও সেটা দেখতে আইফোনেরটার মতো লাগে না। এই বাটনের সাহায্যে কিছু প্রয়োজনীয় অ্যাপ্লিকেশন, উইজেট ব্যবহার করতে পারবেন হোমস্ক্রিণ থেকেই।

গুগল প্লে-স্টোর থেকে ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন (ফ্রি ভার্সন)

সবগুলো অ্যাপস এর সাইজ খুবই কম। এবং এগুলো ফোনের র‍্যামের উপর অন্যান্য Launcher গুলোর মতো অতিরিক্ত চাপ ফেলে না। আপনার ফোনে যদি কমপক্ষে ১ জিবি র‍্যাম থাকে তাহলে খুব সুন্দর এবং স্মুথভাবে উপরোক্ত অ্যাপসগুলোর সাহায্যে অ্যান্ড্রোয়েডে আইফোনের মতো ফ্লেভার পাবেন (Waltion Primo RX2 তে পরীক্ষিত!)। একটা জিনিস মনে রাখবেন কোন কিছুই অন্য কিছুর মতো করে হয় না। আমি শুধু চেষ্টা করেছি যতোটা সম্ভব অবিকল আইফোনের মতো করে করার। সবারই কিছুটা সীমাবদ্ধতা থাকে। আমার টিউনেরও রয়েছে। সেগুলো ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন আশা করি।

অনেকে অভিযোগ/ অভিমান করেছে আমি নাকি বহুদিন থেকে অ্যান্ড্রোয়েড নিয়ে কোন টিউন করি না। এবারের টিউন দেখে তো বুঝতে পারলেন আমার অ্যান্ড্রোয়েড বিষয়ক টিউনগুলো কতো বাজে হয়। এরপর কেউ এমন অভিযোগ/ অভিমান বা এমন টিউন আশা করবেন না যেন।

শেষ কথা

টিউনটি যদি আপনাদের ভালো লেগে থাকে অথবা বুঝতে যদি কোন রকম সমস্যা হয় তাহলে আমাকে টিউমেন্টের মাধ্যমে জানাতে ভুলবেন না। কারন আপনাদের যেকোন মতামত আমাকে সংশোধিত হতে এবং আরো ভালো মানের টিউন করতে উৎসাহিত করবে। আর টিউনটিকে মৌলিক মনে হলে এবং নির্বাচিত টিউন হওয়ার উপযুক্ত মনে হলে নির্বাচিত টিউন মনোনয়ন দিতে ভুলে যাবে না যেন। সর্বশেষ যে কথাটি বলবো, আসুন আমরা কপি পেস্ট করা বর্জন করি এবং অপরকেও কপি পেস্ট টিউন করতে নিরুৎসাহিত করি। সবার সর্বাঙ্গিন মঙ্গল কামনা করে আজ এখানেই শেষ করছি। দেখা হবে আগামী টিউনে।

আপনাদের জন্য » সানিম মাহবীর ফাহাদ

➡ ইমেইলে আমার সকল টিউনের আপডেট পেতে সাবস্ক্রাইব করুনঃ টেকটিউনস » সানিম মাহবীর ফাহাদ 🙄

FB PageProfileTwitterLinkedInGPlusSubscriptionMail

Level 7

আমি সানিম মাহবীর ফাহাদ। সুপ্রিম টিউনার, টেকটিউনস বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 8 বছর 3 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 172 টি টিউন ও 3503 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 137 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

অন্য আর দশটা মানুষের মতোই একদিন এই পৃথিবীতে আসছিলাম। তারপর থেকে নিজের মতো করেই নিজের পৃথিবীতে বেঁচে আছি। এরপর একদিন টুপ করে জীবন্ত পৃথিবী থেকে ঝরে পড়বো। জীবনতো এটাই, তাই না?


টিউনস


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

প্রোফাইল পিকচার পরিবর্তন করেছেন দেখে বুঝতে একটু দেরি হয়ে গেল যে আপনি টিউন করেছেন। যাহোক, এক্সপেরিমেন্ট শুরু করে দিয়েছি। দেখি কতটুকু কাজ করে।

আপনার টিউনের উপর আমার যথেষ্ট ভরসা আছে। টিউনের জন্য ধন্যবাদ 🙂 প্রিয়তে রেখে দিলাম।

    একদিন হয়তো ছায়ার আড়াল থেকে আপনার ছবিটাও বের হয়ে আসবে। যাহোক, এক্সপেরিমেন্ট শেষ করে জানাবেন কেমন হয়েছে। টিউমেন্টের জন্য ধন্যবাদ 🙂

ফাহাদ ভাই,

আপনার সীমারেখা তো আপনি নিজেই জানেন না।( আর যেটা জানেন সেটা ভুল, না হলে কেউ এত ভালো টিউন করে বলে খারাপ লিখলাম। )
আপনার লেখা যতই পড়ি অবাক হয়ে যাই ,
আপনার মতন কেউ সাবলীল ভাবে সব দিকে পারদর্শী ব্যক্তি, খুব কম হয় স্যার।

সবারই কিছুটা সীমাবদ্ধতা থাকে। আমার টিউমেন্টেরও রয়েছে।
আমার টিউমেন্টের কোনো ভুল হয়ে থাকলে সেগুলো ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন আশা করি।

প্রত্যুত্তরের জন্য আগাম ধন্যবাদ। ভালো থাকবেন।

    অনেক ধন্যবাদ অভিষেক হাজরা ভাই,
    আপনি টিউন করেন না কেন? পুরো টেকটিউনস কমিউনিটি তো আপনার টিউনের জন্য অপেক্ষা করে।
    খুব কম সময় টেকটিউনসে টিউন করেছেন, কিন্তু অনেক বেশি অনুসারী করেছেন আপনি।

    সব সময় আপনার টিউনের অপেক্ষায় থাকি। আশা করি খুব শীঘ্রই নতুন টিউন নিয়ে হাজির হবেন।

    ভাই কি হারিয়ে গেলেন নাকি? আপনার টিউন কই ?:(

ভাইয়া আপনার টিউন গুলা বরাবরিই অনেক ভালো মানের।এই ছোট ভাই এর মনে আপনি অনেক খানি জাইগা জুরে আছেন।। + +

আপনার টিউন পড়ে ইতোমধ্যেই এপগুলো ট্রাই করা শুরু করে দিয়েছি। অনেক ধন্যবাদ।
একটা জিনিস অনেকদিন ধরে খেয়াল করছি, পূর্বে আপনার মতই অনেক ভাল ভাল টিউনার চমৎকার সব টিউন করতেন, যেমন – টিনটিন, swordfish, অসীম ভাই সহ অনেকেই নিয়মিত টিউন করতেন। এখন তাদের দেখি না। আগের মত মানসম্পন্ন টিউনও হয় না তেমন। মাঝখানে তো টেকটিউনসে সাইন আপও করা যেত না। এসবের কারণ কী? আমি টেকটিউনসে নতুন হলেও অনেক পুরোনো পাঠক। আশা করি আপনার মাধ্যমে প্রশ্নগুলোর জবাব পাব।

    সাগরের উপরে আইসবার্গের সামান্য অংশ দেখা গেলেও পানির নিচে এর গভীরতা কিন্তু ভাসমান অংশের কয়েক হাজার গুন। জনপ্রিয় টিউনারগুলোর হারিয়ে যাওয়ার পেছনেও অনেক কারণ আছে। তবে সেগুলো তাদের ব্যক্তিগত ব্যাপার বলেই আমার বলার এখতিয়ার নাই।

    পদার্থবিজ্ঞানের আন্তঃআনবিক শক্তির সাথে স্থিতিস্থাপকতার একটা সম্পর্ক আছে। যদি কোনদিন সুযোগ হয় পড়ে নিবেন। তাহলেই বুঝতে পারবেন কেন সেসব টিউনাররা হারিয়ে গেছে।

Level 0

iPhone Keyboard -এ বাংলা টাইপ করা যায় না?

    না ভাই, শুধু ইংরেজি টাইপ করতে পারবেন। তবে একই ধরনের থিম রিদ্মিক কীবোর্ডে পাবেন।

উফ, ব্যাঙের শীতনিদ্রাও এত দীর্ঘ হয় না যতটা না আপনারটা, এমনই নিদ্রা যে যখন আপনারটা ভেঙেছে তখনও আমারটা পুরোপুরি ভাঙেনি…..তা না হলে আপনার আগের টিউনটা যথাসময়ে মিস করতাম না :mrgreen:

লাল কালিতে মোটা দাগে কেন কথাগুলো বলেছেন তা কিছুটা হয়তো আঁচ করতে পেরেছি……লেখা নিয়ে লেখকের কিছু সংশয় থাকা ভাল…লেখকের সূক্ষ্ম সাবধানতার দরূন লেখার মান বৃদ্ধির সম্ভাবনা থাকে তাতে…….আর নিজের সৃষ্টির প্রতি স্রষ্টার অতৃপ্তি কিন্তু সৃজনশীলতারই অন্যরকম প্রকাশ 🙂

থিম পরিবর্তন বিষয়ক সাধারন জিনিসটার সবগুলো দিক এত সাজিয়ে বলেছেন যে, আমার কাছে আপাত চরম বিরক্তিকর এই বিষয়টাও এখন একবার পরখ করতে ইচ্ছে হচ্ছে…..তাছাড়া পরিমানমতো চিনি মেশালে ঘোলও কিন্তু যথেষ্ট সুস্বাদুই হয়, নাকি? 😉

বসন্ত রাতের শীতল বাতাসের অচেনা ঠান্ডা গন্ধের সৌরভ থাকল……বারান্দায় দাঁড়িয়ে উপেক্ষা না করার মতো রাতের এই মাতাল ডাকটা উপভোগ করেন 🙂

    দীর্ঘদিন বিশাল বিশাল টিউন লিখেছি। সময় ছিলো, উৎসাহ ছিলো, টেকটিউনস নিয়ে ভাবার অবকাশ পেয়েছিলাম। আজকাল এগুলোর কোনটাই তেমন নাড়া দেয় না। তাই একবার শীতনিদ্রায় গেলে কেউ জাগিয়ে না দিলে জাগার সুযোগ পাই না। তবে আপনার অনুপস্থিতি ঠিকই বুঝতে পারছিলাম।

    অবশেষে ফিরে আসায় ভালো লাগছে 🙂

    একটা টিউনের পিছনে আজকাল খুব বেশি সময় ব্যয় করার সুযোগ পাই না। তাই নিজেরই মন ভরে না টিউন নিয়ে। তাছাড়া আজকাল কেন মৌলিক লেখা প্রকাশ করতে পারছি না। তাই সব সময় সংশয় থাকে পাঠকরা এটাকে ভালো ভাবে নিবে কিনা। তবে আপনাদের ভালো লেগেছে এটাই কিছুটা আশার কথা।

    আশা করি সব সময় টেকটিউনসের সাথেই থাকবেন। আমি থাকি বা না থাকি 🙂 আপনার জন্য শুভ কামনা।

এক কথায় অসাধারন। এ্যাপ ডাউনলোড চলছে। দেখা যাক কেমন লাগে…

খুবই ভাল লাগলো এবং একই সাথে “নির্বাচিত টিউন মনোনয়ন করতে ভুলিনি” 🙂

ভাই ৫১২ এমবি ramএও কি smoothly চলবে???

ভাই android phone এ দেখা জায় যে ব্রাউজার দিয়া সরাসরি কোন সাইটএ ভিডিও দেখা যায় না। এর কোন সমাধান আছে কি??

    যেকোন ব্রাউজারকে পিসি মোডে রান করলে সরাসরি ভিডিও দেখতে পাবেন। তবে ইউসি ব্রাউজার এইচডি ব্যবহার করে আমি যেকোন সাইটের ভিডিও দেখেছি।

os8 lock screen and keyboard duita besi valo

    ব‍্যবহার করার জন্য ধন্যবাদ ভাই। তবে রিদ্মিক কীবোর্ডে এই থিমটা এমনিতেই দেওয়া আছে। ট্রাই করে দেখতে পারেন।

আপনার পিকচার চেঞ্জ করায় এটা যে আপনার টিউন সেটা বুঝতেই পারি নাই। হট টিউন্স থেকে খুজে পেলাম। যাইহোক,
যতটা খারাপ বলছেন টিউনটাকে আসলে মোটেও খারাপ হয় নাই, এন্ড্রয়েড এর লুক পুরাই আইফোন করে ফেলছেন। তবে মনে হচ্ছে আরো একটু যুক্ত করে দিলে ভালো হত- যেমন- https://goo.gl/LizUab দুধের স্বাদ ঘোলে মেটানো আর কি।

    হুম, এই সমস্যাটা যে অনেকের হয়েছে এটা বুঝতে পারছি 🙁 টেকটিউনসে ছবি পরিবর্তন করলে টিউনার চেনা কষ্টকর। যাহোক, সুুন্দর টিউমেন্টের জন্য ধন্যবাদ জনি ভাই 🙂

ভাই android এর অনেক গেমস আছে যেগুলোতে extension file লাগে। PC দিয়ে এই ফাইল নামানোর কোন উপায় আছে কি??

    কম্পিউটার দিয়ে যেকোন ধরনের ফাইল ডাউনলোড করতে পারবেন। তবে আইডিএম দিয়ে ডাউনলোড করতে চাইলে সেই ফাইলটাইপ এন্ট্রি করে নিতে হবে সেটিংস থেকে।

“”সানিম মাহবীর ফাহাদ”” ভাই আমি Google Play Store থেকে Paid Apps Download করতে চাই, তার জন্য আপনার সাহায্য প্রয়োজন। কিভাবে Paid Apps Download করতে পারব, যদি আমাকে বলতেন ভাই। Please help me.

    সরাসরি প্লেস্টোর থেকে যেকোন পেইড অ্যাপস ডাউনলোড করার কোন শতভাগ কার্যকর টিপস আমি জানি না। তবে যেকোন অ্যাপস এর প্রিমিয়াম ভার্সন গুগলে সার্চ করলে ডাউনলোড করতে পারবেন। আমি তো সব অ্যাপস এভাবেই ডাউনলোড করি।

ভাই ! আমি উইন্ডজ ৮ স্কাইপি একটিভ ইউজার ।
আমার সি ড্রাইভ ২০ জিবি । উইন্ডোজ ৮ দেবার পরে এখন ফাকা আছে ৪ জিবি ।
এখন আমি উইন্ডোজ ১০ শখের বসে ইউজ করতে চাই ।
কিন্তু আপডেট করতে পারছিনা বার বার স্টোরেজ ৮ জিবি ফ্রি দেখাচ্ছে ।
এখন আমি সরাসরি সিডি থেকে উইন্ডোজ ১০ দিতে চাচ্ছি । কিন্তু সেটা মেডসিন ফাইল দিয়ে একটিভ করে ইউজ করলে কি ভালো হবে নাকি ৮ ইউজ করলেই ভালো হবে ? দয়া করে জানালে উপকৃত হতাম ।

    সিডি থেকে কিংবা আইএসও ফাইল ডাউনলোড করে সেটাপ দিলে ভালো হবে। একটিভেশন এর ব্যাপারটা নিয়ে কোন ঝামেলা হবে না।